মোস্তফা সরয়ার ফারুকী করোনাভাইরাস নিয়ে এফবি স্ট্যাটাসে যা বললেন

আমি যদিও সবাইরে সবসময় বলি,সাহস ছড়াই চলেন। কিন্তু আশেপাশে নানান কিসিমের মূর্খতা,বলদামি আর ইতরামি দেখে বলতে চাই, চলেন আতঙ্ক ছড়াই—গুণী নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী এক স্ট্যাটাসে এসব কথা লিখেন।
বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে। কিন্তু দেশের নাগরিকদের উদাসীনতা দেখে হতাশা ব্যক্ত করেছেন ফারুকী। সমাজে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে তার নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। কিন্তু আতঙ্ক যদি মানুষকে সচেতন করে তোলে, তবে আপাতত তাই কামনা করছেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে ফারুকী লিখেন,হে খোদা, আমাদের দিলের মধ্যে একটু আতঙ্ক দাও। একটু আতঙ্কিত করো আমাদের। আতঙ্কে আমরা যেন ঘরে ঢুকে যাই। মূর্খ এবং আত্মঘাতী বীরত্ব দূর করে আমাদের নফসের মধ্যে একটু আতঙ্ক ঢেলে দাও। যেন আমরা অনুধাবন করতে পারি করোনা ছেলেখেলা করতে আসে নাই এই ধরায়। যেন আমরা বুঝতে পারি, ইবাদত একা একা ঘরে বসেও করা যায়। যেন আমরা নানা পদের তামাশা দেখতে রাস্তায় না যাই। যেন আমরা বিশ্বাস না করি, করোনা আমাদের ধরবে না। আমিন।
সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ফারুকী। সেই সঙ্গে কিছু বিষয়ে পরামর্শ দিয়ে তিনি লিখেন, সরকারকে ধন্যবাদ, দেরিতে হলেও সেনাবাহিনী নামানোর জন্য। এখন দয়া করে নিশ্চিত করি চলেন সেনাবাহিনীর ভাই-বোনদের কাছে যেন পর্যাপ্ত প্রটেকটিভ গিয়ার থাকে, যেন তারা নিজেরাই আক্রান্ত না হয়। উপজেলা ভিত্তিক লক ডাউন চালু করার জন্যও ধন্যবাদ। প্রয়োজনে আরো কঠোর হোন এবং লক ডাউন বিস্তৃত করেন। তথ্যের স্বচ্ছতা এমনভাবে নিশ্চিত করেন যাতে জনগনের আস্থা তৈরি হয় সরকারি ভাষ্যে। দুর্যোগকালীন মুহূর্তে এই আস্থাটা খুব দরকার।
বিশ্বের ১৭৯টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ভয়াবহ করোনাভাইরাস। এ ভাইরাসে সারা বিশ্বে এখন পর্যন্ত ১০ হাজার ৪৮ জন মারা গেছেন। আর আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ১৯ হাজার ৮৭ জন। গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১৭ জন।

Facebook Comments