একাদশ জাতীয় নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। আজ র ৮টা থেকে এ ভোটগ্রহণ শুরু হয়। বিকাল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোট গ্রহণ চলবে ২৯৯ আসনে। ব্যালট পেপারসহ প্রয়োজনীয় নির্বাচনসামগ্রী ভোট কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে। এবার ৬টি আসনে ভোট হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)। বাকি ২৯৩ আসনে সনাতন পদ্ধতির ব্যালটে ভোট নেওয়া হবে।
শান্তিপূর্ণ ভোটের জন্য সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, নির্বাহী ও বিচারিক হাকিম নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন। অবাধ-সুষ্ঠু ভোট গ্রহণে সবকিছু কঠোরভাবে মনিটরিং করছে নির্বাচন কমিশন। এজন্য ইসিতে নিয়ন্ত্রণকক্ষ খোলা হয়েছে।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রয়েছে নিবন্ধিত ৩৯ দল। ভোটের লড়াইয়ে আছেন ২৯৯ নির্বাচনী এলাকায় ১ হাজার ৮৬১ জন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী। এর মধ্যে রাজনৈতিক দলের প্রার্থী ১ হাজার ৭৩৩ জন। স্বতন্ত্র প্রার্থী ১২৮ জন। প্রার্র্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগের ২৬০ (নৌকা ২৭২), বিএনপির ২১৯ (ধানের শীষ ২৮২), জাতীয় পার্টি ১৭৫ (মহাজোট ২৫) এবং নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি প্রার্থী ২৯৮ আসনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের। অধিকাংশ নিবন্ধিত দলের বর্জন-সহিংসতার মধ্যে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন হওয়ার পাঁচ বছর পর এবারের নির্বাচনে সব দলকেই পাচ্ছে নির্বাচন কমিশন।
১০ কোটি ৪২ লাখ ভোটারের এ নির্বাচনে রেকর্ডসংখ্যক প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন। এবারে ভোট কেন্দ্রের ভিতরে মোবাইল ফোন ব্যবহারেও নিয়ন্ত্রণারোপ করা হয়েছে। শুধু কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ও কেন্দ্রের নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশের ইনচার্জ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন। কেউ ভোট দিতে মোবাইল ফোন নিয়ে গেলেও তা বন্ধ করে যেতে হবে।

Facebook Comments