মিশা-জায়েদের বয়কটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

বিনোদন ডেস্ক

চলচ্চিত্র শিল্প ও শিল্পীদের স্বার্থ রক্ষায় শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর, সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানকে বয়কটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি।

রোববার (১৯ জুলাই) সন্ধ্যায় বিএফডিসির ভিআইপি প্রজেকশন হলে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।এ সময় মিশা-জায়েদ খানের বয়কটের বিষয়টি নিয়ে সমঝোতার কথা বলেন শিল্পী সমিতির নেতারা।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন,চলচ্চিত্রের বর্তমান অবস্থা নিয়ে নতুনভাবে বলার কিছুই নাই। মানুষ কাজ করতে পারছে না, উপার্জন করতে পারছে না। সেই জায়গায় যদি এমন দলাদলি হয় তাহলে এটা অত্যন্ত দুঃখজনক বিষয়। এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

পরিচালক-প্রযোজকদের উদ্দেশে আমি বলবো, আপনারা চলচ্চিত্রের অংশ যেমন আমরাও চলচ্চিত্রের অংশ। কেউ কাউকে বাদ দিয়ে চলচ্চিত্র এগুতে পারবে না।’

চিত্রনায়ক রুবেল বলেন, আমি এটুক কথা দিতে পারি যাদের চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্য পদ বাতিল করা হয়েছে তাদের যদি যোগ্যতা থাকে তাহলে অবশ্যই শিল্পী সমিতির পূর্ণ সদস্য হিসেবে ফেরত আসবেন।

অঞ্জনা সুলতানা বলেন, যারা শিল্পী সমিতিতে এসেছেন, তারা চলচ্চিত্রকে ভালোবেসে এসেছেন। তারা চলচ্চিত্র ছেড়ে দিলে কথা দিতে পারবেন প্রতিবছর ১০০ সিনেমা মুক্তি দিবেন। কথায় কথায় বয়কট। কার জন্য বয়কট, কে বয়কট করেছেন? আজকে শিল্পী যদি কাজ না করে প্রযোজক পরিচালকদের কী হবে?

তিনি আরো বলেন, আমি যখন চলচ্চিত্রে আসি তখন আশিষ কুমার বলেছিলেন, প্রযোজকরা হচ্ছেন বাবা, পরিচালকরা হচ্ছেন মা। আমরা কিন্তু তাদের সন্তান সেইভাবে কাজ করে যাবি। এই কথা সবসময় মনে রেখেছি। আজ বাবা মায়ের এই কাণ্ড!

সংবাদ সম্মেলনে নানা বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন, চিত্রনায়িকা অঞ্জনা সুলতানা, সাদেক বাচ্চু, নৃত্য পরিচালক মাসুম বাবুল, অভিনেতা-প্রযোজক মনোয়ার হোসেন ডিপজল, নায়ক রুবেল, প্রযোজক ও সেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক টিটু, মিশা সওদাগর, নৃত্য পরিচালক আজিজ রেজা, খোকন, জায়েদ খানসহ অনেকে।সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন—লিটন হাসমি, আলেক জান্ডার বো, মারুফ আকিব, জয় চৌধুরী, জাকির প্রমুখ।

Facebook Comments