বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ব্রাজিলের সাবেক গোলরক্ষক সিজারের শ্রদ্ধা

মুজিববর্ষ উপলক্ষে সবার আগে বাংলাদেশে এসেছেন ফুটবলের পাওয়ার হাউজ, ৫ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের সাবেক গোলরক্ষক হুলিও সিজার। ফিফার এই ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর বুধবার বিকেলেই ঢাকায় এসে পৌঁছান। মূলতঃ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের প্রচারণার উদ্দেশ্যেই সিজারকে আনা হয়েছে ঢাকায়।
আজ সকাল ১১টায় ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু যাদুঘর পরিদর্শন করেন। তাকে যাদুঘর ঘুরিয়ে দেখান রেদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি (শেখ রেহানার ছেলে), বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন, সিনিয়র সহসভাপতি সালাম মুর্শেদীরা।
এরপর বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন সিজার। সেখানে রক্ষিত মন্তব্য খাতায় নিজের নাম এবং মন্তব্য লেখেন তিনি। এরপর সেখানে লেখেন, ‘It was a pleasure to be here. Thanks a lot for having nice trip.
ধানমন্ডির ৩২ নম্বর থেকে হুলিও সিজার দুপুর পৌনে ১টায় চলে আসেন মতিঝিলস্থ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে। এ সময় বাফুফে কর্মকর্তারা ফুল দিয়ে এই ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারকে স্বাগত জানান।
বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে জুলিও সিজার বলেছেন, ‘বাংলাদেশে এটি আমার প্রথম সফর। এদেশের ফুটবল সম্পর্কে বেশি কিছু জানি না। এখানে এসেছি যখন, কিছু জানতে পারব নিশ্চয়ই। এখানে এসে আমি খুব খুশি।’
‘ব্রাজিল বিশ্ব ফুটবলে এক পরাশক্তি। রোনালদিনহো, কাকাদের মতো ফুটবলারদের নাম বলতে পারি যারা খুবই জনপ্রিয়। এমন ফুটবলার আমাদের আরও আছে।’
সিজার ক্লাব ক্যারিয়ারে ফ্লামেঙ্গো, ইন্টার মিলান, বেনফিকার হয়ে খেলেছেন। ২০০৯-১০ মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা জেতেন ইন্টারের হয়ে। ২০১০ সালে ক্লাব বিশ্বকাপসহ জিতেছেন অনেক শিরোপা।
ব্রাজিলের হয়ে দুটি কনফেডারেশন কাপ ও একটি কোপা আমেরিকা জয়ের স্মৃতি আছে তার। সিরি ‘এ’ সেরা গোররক্ষকের পুরস্কার পেয়েছেন টানা দুবার। ব্রাজিলের হয়ে ৮৭ ম্যাচ খেলেছেন। ২০১৪ সালে বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে জার্মানির কাছে ৭-১ গোলে উড়ে যাওয়া সেই ম্যাচে গোলরক্ষক ছিলেন সিজার।

Facebook Comments