এই প্রথম এমন লজ্জা

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে লজ্জাজনকভাবে হেরেছে রিয়াল মাদ্রিদ। বুধবার সিএসকেএ মস্কোর কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। যা এ যাবৎকালের ইতিহাসে ইউরোপিয়ান টুর্নামেন্টে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রিয়াল মাদ্রিদের সবচেয়ে বড় পরাজয়!
এই ম্যাচে হারলেও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর টিকিট নিশ্চিত করেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ছয় ম্যাচ শেষে স্প্যানিশ ক্লাবটির সংগ্রহ ১২ পয়েন্ট। সমান সংখ্যক ম্যাচ থেকে ৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থেকে গ্রুপ পর্বের বাধা অতিক্রম করেছে ইতালিয়ান ক্লাব এস রোমাও। তবে মজার ব্যাপার হলো শেষ ষোলোর টিকিট কাটা রিয়াল মাদ্রিদ ও রোমা উভয় ক্লাবই এদিন গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে হার দেখেছে।
তবে রিয়াল মাদ্রিদ হেরেছে নিজেদের মাঠে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এর আগের ২৭ হোম ম্যাচ থেকে ৮১ পয়েন্টের ৭৫ পয়েন্টই নিজেদের করে নিয়েছিল। কিন্তু বুধবার সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে নিজেদের ইতিহাসের সবচেয়ে লজ্জাজনক পরাজয়টা পেয়ে গেল রিয়াল। এর আগে সর্বশেষ বার্নাব্যুতে এসি মিলানের কাছে ৩-২ গোলে হেরেছিল স্প্যানিশ ক্লাবটি। ২০০৯ সালের অক্টোবরের সেই পরাজয়ের পর বুধবার সিএসকেএ মস্কোর কাছে প্রথম ধরাশায়ী হলো রিয়াল মাদ্রিদ।
অন্যদিকে সিএসকেএ মস্কো গত ১০ বছরের মধ্যে প্রথম দল হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের উভয় লেগেই রিয়াল মাদ্রিদকে হারের স্বাদ উপহার দিল। গ্রুপ পর্বে এবার সিএসকেএ মস্কো দুটি জয় পেয়েছে। এই দুটিই আবার রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে। যদিওবা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে দাপট দেখিয়েও ‘জি’ গ্রুপের তলানীতে থেকে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিতে হয়েছে তাদের।
জুলেন লোপেতেগুইয়ের উত্তরসূরি হিসেবে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেন সান্তিয়াগো সোলারি। কোচ হিসেবে রিয়ালের প্রথম নয় ম্যাচের আটটিতেই জয়ের স্বাদ পান তিনি। একমাত্র হারটা ছিল এইবারের কাছে। ৩-০ গোলের বড় ব্যবধানে। বুধবার দ্বিতীয় পরাজয়ের স্বাদ পেলেন তিনি। এই ম্যাচের ফলাফলও সেই তিন গোলের।

Facebook Comments